ময়মনসিংহ,ময়মনসিংহ জেলা,ময়মনসিংহ,পার্ক,বিপিন পার্ক,শশী লজ,ময়মনসিংহ ভ্রমণ,বোটানিক্যাল গার্ডেন,ময়মনসিংহ ভ্রমণ,বিপিন পার্ক ময়মনসিংহ,পার্ক ময়মনসিং,বিশ্ব মানচিত্র

”বিপিন পার্ক” পরিচিতি

বিপিন পার্ক(Bipin Park) ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে ময়মনসিংহ শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত। এটি প্রায় ২০০ বছরের পুরাতন এক ঐতিহ্যবাহী চিত্তবিনোদন কেন্দ্র। ঐতিহ্যের দৈন্যদশা পুনর্গঠন করে সীমাবদ্ধ রেখে থিমপার্ক রূপে কংগ্রেস জুবিলি রোডে পার্কটিকে নির্মাণ করা হয়েছে। নতুন করে বিপিন পার্কে গঠন করা হয়েছে বিভিন্ন স্থাপনা, সীমানা প্রাচীর, দৃষ্টিনন্দন ঝর্ণা, ফুলের বাগান, হাটা পথ ও বসার বেঞ্চ।

”বিপিন পার্ক” কিভাবে যাবেন

ঢাকা মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে এনা, আলম এশিয়া সহ আরও অনেক বাস সার্ভিস ঢাকা থেকে ময়মনসিংহ রোডে চলাচল করে থাকে। প্রায় ৩ ঘন্টার মত সময় লাগে ঢাকা থেকে ময়মনসিংহ আসতে। তাছাড়া ঢাকা কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে প্রতিদিন ৭টি আন্তনগর এবং মেইল ট্রেন ময়মনসিংহ যেয়ে থাকে। রিকশা, সিএনজি অথবা ইজিবাইকে করে ময়মনসিংহ রেলষ্টেশন ও বাস টার্মিনাল থেকে বিপিন পার্ক(Bipin Park) যেতে পারবেন।

”বিপিন পার্কে” কোথায় থাকবেন

আপনি যদি ঢাকা এবং ময়মনসিংহের আশেপাশের জেলায় থেকে থাকেন তাহলে আপনি দিনে গিয়ে দিনেই ফিরে আসতে পারবেন। তাছাড়া ময়মনসিংহ শহরে বেশকিছু হোটেল অবস্থিত সেখানে ও চাইলে থাকতে পারবেন। হোটেল গুলুর মধ্যে রয়েছে আমির ইন্টারন্যাশনাল, হোটেল আল হেরা, হোটেল মোস্তাফিজ, সিলভার ক্যাসেল, রিভার প্যালেস, হোটেল আসাদ, ঈশা খাঁ এবং হোটেল নিরালায়।

”বিপিন পার্কে” কোথায় খাবেন

ময়মনসিংহে ভালমানের বেশকিছু খাবার হোটেল রয়েছে। হোটেল গুলোর মধ্যে সারিন্দা, হোটেল খন্দকার, ধান সিড়ি, সেভেন ইলেবেন, হোটেল মিনার, রোম থ্রি এবং ময়মনসিংহ প্রেস ক্লাব ক্যান্টিন ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। এবং সময় সুযোগ থাকলে ময়মনসিংহের ঐতিহ্যবাহী মালাইকারী, গুড়ের সন্দেশ, মুক্তাগাছার মন্ডা এবং কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের খাঁটি দই অবশ্যই চেখে দেখতে ভুলবেননা।

বিশেষ নিবেদন

বাংলাদেশের যে কোন পর্যটন স্থান আমাদের দেশের সম্পদ, আমাদের সম্পদ। এইসব স্থানগুলোর সৌন্দর্য্য রক্ষা করা আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য। তাই এইসব স্থানের প্রাকৃতিক অথবা সৌন্দর্য্যের জন্যে ক্ষতিকর এমন কিছু করবনা যাতে করে এইসব স্থানগুলোর সৌন্দর্য্য নষ্ট হয়ে যায়। আমারা বাঙালি তাই আমরা কখনই চাইবনা আমাদের দেশের সৌন্দর্য্য নষ্ট হয়ে যাক। আমরা নিজেরা সৌন্দর্য্য উপভোগ করি এবং সবাইকে উপভোগ করার সুযোগ করে দেই। এই দেশ আমাদের, এই দেশের সব কিছুই আমাদের তাই দেশের প্রতি যত্নবান হবার দায়িত্বও আমাদের।

বিডি ট্রাভেল গাইড সব সময় চেষ্টা করবে আপনাদের কাছে সঠিক তথ্য প্রদান করতে। ভালো লাগলে শেয়ার করুন সবার সাথে এবং আমাদের সাথে থাকার অনুরুধ রইল। ধন্যবাদ।।।

হ্যাপি ট্যুর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here